Logo
শিরোনাম :
ফুলবাড়ীতে পৌর নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়-ঝাপ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে চোরাই মোটরসাইকেল সহ ২ চোরকে আটক করেছে র্র্যাব জেলা প্রশাসকে ই-নথি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত শরীয়তপুরে যুক্তরাষ্ট্রের জ্যানেট ইয়েলেনকে অর্থমন্ত্রী করা হচ্ছে বদরগঞ্জে জামায়াতের আমীরসহ চারজন গ্রেফতার কক্সবাজারের বিশিষ্ট পরিবহন শ্রমিক নেতা বাদশার বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন নিউজের তীব্র প্রতিবাদ গনমাধ্যম ও সাংবাদিকদের সামনে কঠিন বিপদের আশংকা: ফরিদুল মোস্তফা খান আশাশুনিতে অফিস উদ্বোধন ও আলোচনা সভা আশাশুনিতে বিশ্ব এন্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষে আলোচনা সভা আশাশুনিতে কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শনে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা

যশোর-বেনাপোল সড়কের দু’পাশে ময়লা-আবর্জনার স্তূপ

জয়নাল আবেদীন: ময়লা-আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে যশোর-বেনাপোল হাইওয়ে সড়কের দু’পাশ। এ সড়কে চলাচলকারী হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এসব ময়লা-আবর্জনার স্তূপ।

শার্শা উপজেলার নাভারণ ও বেনাপোলের মাঝ বরাবর যা উপজেলার খুব কাছেই এমন ময়লা-আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হলেও তা যেন দেখার কেউ নেই।

যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে ময়লা-আবর্জনা। ময়লা ফেলার নির্ধারিত জায়গা ও ডাস্টবিনের অভাবে আবর্জনার স্তূপ তৈরি হয়েছে দীর্ঘতম সড়কের বিভিন্ন জায়গায়। নিয়মিত পরিষ্কার না করায় দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ ।

মানুষকে নাকে রুমাল দিয়ে চলাচল করতে হয় সড়কের পাশে গড়ে উঠা এসব ময়লার ভাগাড়ের কারনে। দিন যত যাচ্ছে সড়কের দুই পাশে ময়লার স্তূপ তত বড় হচ্ছে। স্থানীয় হাটবাজার, পাড়া-মহল্লার বর্জ্য ফেলার স্থান হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে সড়ককের দুই ধারকে।

ফলে নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসে উৎকট গন্ধে। এতে ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্য। বিশেষ করে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাসহ পথচারীদের চরম ভোগান্তি পোহোতে হচ্ছে। সড়কে চলাচলকারী সাধারণ মানুষ জানায় কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনার কারণে প্রতিদিন ময়লা-আবর্জনা ফেলা হচ্ছে সড়কের ওপর। এত অস্বস্তিকর পরিবেশ সৃষ্টি হলেও ময়লা-আবর্জনা সরানোর কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না কর্তৃপক্ষ।

সরেজমিনে দেখা যায়, হাইওয়ে সড়কের দুধারে ফেলানো এসব ময়লা-আবর্জনার স্তূপ থেকে দুর্গন্ধে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন পথচারীসহ বিভিন্ন যানবাহনে চলাচলরত যাত্রী এবং এসব এলাকার বসবাসকারীরা। দুর্গন্ধের কারণে পেটের পীড়া সহ নানাবিধ রোগাক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিতে পারে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা: অশোক কুমার সাহা।

শার্শা উপজেলা থেকে বার বার পরিবেশ পদক পাওয়া উদ্ভাবক মিজানুর রহমান জানান, ব্যাস্ততম এই সড়কের অনেক জায়গায় ময়লা-আবর্জনার স্তূপ রয়েছে। দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ নারী-পুরুষ সবাই। ফলে সংশ্লিষ্টদের নিয়মিত ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার রাখার অনুরোধ জানাচ্ছি।

পথচারী জোছনা বানু বলেন, সড়কে স্তূপ করে রাখা ময়লা-আবর্জনা ও মরা মুরগির বিষ্ঠার গন্ধে চলাচল করতে কষ্ট হয়। মুখ চেপে শ্বাস বন্ধ করে হাঁটতে হয়। আমরা এ দুর্গন্ধ থেকে পরিত্রাণ চাই।

এলাকাবাসীর পক্ষে উদ্ভাবক মিজানুর রহমান জানান, এসব ময়লা আবর্জনা সরানোর জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে বহুবার মৌখিক আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু তাতে কর্তৃপক্ষের কোনো সাড়া বা অপসারণের কোনো লক্ষণই দেখা যাচ্ছে না। অভিযোগ করে বলেন, এসব আবর্জনা ফেলার জন্য তেমন কোন নির্দিষ্ট স্থান না থাকায় সড়কের পাশে স্তূপ করছেন এক শ্রেণির লোক।

প্রতিদিন যেখানে-সেখানে ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে সড়কে চলাচল করতে অনেক সমস্যা হয় এলাকাবাসীর। গাড়িতে চলাচল করতে হলেও নাক-মুখ চেপে রাখতে হয়। এতে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ছেন উপজেলার বাসিন্দারা। এমতাবস্থায় কর্তৃপক্ষের এবিষয়ের উপর সুদৃষ্টি একান্ত প্রয়োজন বলে মনে করেন সচেতন মহল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!