নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত ঢাকার দক্ষিণ সিটি প্রার্থীরা

নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত ঢাকার দক্ষিণ সিটি প্রার্থীরা

স্টাফ রিপোর্টারঃ
পৌষের শীতে নগর জীবন বিপর্যস্ত হলেও তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে ভোটের মাঠে উষ্ণতা ফেরাতে উত্তাপ ছড়াচ্ছেন ঢাকার দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের প্রার্থীরা। এ নিয়ে রাজধানীতে প্রধান প্রধান দলের রাজনৈতিক নেতারা যেমন মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন ঠিক তেমন সাধারণ ভোটারদের মধ্যেও কাজ করছে নানা আগ্রহ। মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীর জন সংযোগ, নির্বাচনী প্রচারণা, প্রতিশ্রুতি ও ভোটারদের নিয়ে বিশেষ দিক তুলে ধরে দৈনিক ‘বাংলাদেশের আলো’র বিশেষ প্রতিবেদন।

নৌকার পক্ষে প্রচারণার পঞ্চম দিনে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থানাধীন ৫৫, ৫৬ ও ৫৭ নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ চালান ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। তার সঙ্গে নির্বাচনী প্রচারণা ও গণসংযোগে অংশ নেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সহ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ ও মহানগর দক্ষিণের নেতারা। এ সময় নারী-পুরুষ, শিশু-বৃদ্ধসহ সকল শ্রেণিপেশার মানুষ তাপসকে হাত নেড়ে তাদের সমর্থন জানান। বেলা ১২ টায় কামরাঙ্গীরচর থানার ঝাউচর এলাকা থেকে নির্বাচনী প্রচারণার উদ্বোধনী বক্তব্য ও সংক্ষিপ্ত পথসভার মধ্য দিয়ে গনসংযোগ শুরু করেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

এ সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেন তিনি বলেন – মেয়র নির্বাচিত হলে ৯০ দিনের মধ্যে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত সহ আধুনিক ঢাকা গড়ে তোলার লক্ষ্যে বছরের প্রতিটি দিনের প্রতিটি ক্ষণ ঢাকা বাসীর পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমর্থিত এই মেয়র প্রার্থী।
গণসংযোগকালে ডিএসসিসির ৫৫, ৫৬ ও ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের তিন কাউন্সিলর প্রার্থী নূরে আলম, মোহাম্মদ হোসেন ও সাইদুল ইসলাম মাদবর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর প্রার্থী শেফালী আক্তারকে পরিচয় করিয়ে দেয়ার পাশাপাশি নৌকা ও তাদের স্ব স্ব প্রতীকে ভোট চান তাপস।

গণসংযোগকালে তাপস মানুষের মাঝে লিফলেট বিতরণ করেন ও মাথায় হাত বুলিয়ে দেন, সেই সাথে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা তাদের প্রচার প্রচারনার জন্য তাদের প্রতিশ্রুতি গুলো জনগনের কাছে তুলে ধরেন ও মতবিনিময় করেন। তখন মাঠে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলালীগ সহ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন সহ এলাকার বিভিন্ন নেতাকর্মীরা ব্যারিষ্টার তাপসের পক্ষে ভোট চান। এ সময় এলাকার সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতিতে স্বতঃস্ফুর্তভাবে প্রচার প্রচারনায় জমে উঠে কামরাঙ্গীরচর।

নগরবাসীর উদ্দেশে ব্যারিষ্টার তাপস বলেন – আপনারা যদি আমাকে মেয়র নির্বাচিত করেন, তবে আমি আপনাদের কাছে ওয়াদা করছি, আপনাদের মৌলিক সমস্যা গুলো সবার আগে সমাধান করব আর সেই সাথে আপনাদের সেবা করার সুযোগ পেলে আমাদের প্রাণের ঢাকা, ভালোবাসার ঢাকা, জীবন যাপনের ঢাকা, নতুন প্রজন্ম নিয়ে স্বপ্নের ঢাকা গড়ব।

নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ের আশা প্রকাশ করে ব্যারিস্টার তাপস বলেন, আমরা উন্নয়ন পরিকল্পনায় ঢাকা-কে পাঁচ ভাগে ভাগ করে ‘আমাদের ঐতিহ্যের ঢাকা, সুন্দর ঢাকা, সচল ঢাকা, সুশিক্ষিত ঢাকা এবং উন্নত ঢাকা হিসেবে তোলার জন্য জনগণের কাছে যে উন্নয়নের রূপরেখা তুলে ধরেছি। জনগণ এটাতে ব্যাপক ভাবে সারা দিয়েছে। তারা এগিয়ে আসছেন। প্রাণের ঢাকাকে সুন্দর করার সুযোগ পেয়েছি। এই ঢাকায় যারা বসবাস করি, এই ঢাকা আমাদের সবার। আমরা ঢাকাবাসী আমরা আমাদের উন্নত ঢাকা গড়ব। এই নতুন যাত্রায় আমি বিশ্বাস করি, ঢাকাবাসী আমাদের সমর্থন দেবেন এবং বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন।

অবহেলিত কামরাঙ্গীরচরের উন্নয়নে কাজ করার অঙ্গীকার করে ফজলে নূর তাপস বলেন- এই এলাকা আগে ইউনিয়নভুক্ত ছিল, এখন সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত হয়েছে। এই কামরাঙ্গীরচর যাতে উন্নত ঢাকার একটি অংশ হয়, সে জন্য এখানকার সাংসদ এডভোকেট কামরুল ইসলাম উন্নয়ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছেন। আমরা সেই উন্নয়ন কার্যক্রমকে শুধু ত্বরান্বিত নয়, আমরা চাই অবহেলিত কামরাঙ্গীচর যেন আধুনিক ঢাকা হিসেবে রূপ পায়। এই এলাকার উন্নয়নের জন্য অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

এ সময় নির্বাচনী প্রচার ও গণসংযোগে আরো অংশ নেন – আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য মুকুল বোস, হাজী আবুল হাসনাত, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আনোয়ার হোসেন, সাহাবুদ্দিন ফরাজী, ফজলে নূর ও ঢাকা দক্ষিণের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © bbsnews24 2020
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!