শিরোনাম :
শিবগঞ্জে শিশুবিয়ে প্রতিরোধে ধর্মীয় নেতাদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।। চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাত্রাতিরিক্ত আর্সেনিকে চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে জেলাবাসী জেলার শেষ্ঠ অফিসার নির্বাচত হলে নাইক্ষ্যংছড়ি থানারওসি মুহাম্মদ আলমগীর বাকেরগঞ্জ থানার দুর্নীতির বরপুত্র এএসআই রেজাউলকে অপসারণ দাবী! সাত মাস বিরতির পর ওমরাহ পালনের জন্য খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত স্বাস্থ্য সেক্টরে ‘ডিপ্লোমা ফার্মাসিস্ট’ জাতি হিসেবে অনন্য!! পুলিশের পরিবর্তন দৃশ্যমান হচ্ছে- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শার্শার বাগআঁচড়ায় বাজার কমিটির জরুরি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয় নিয়ে একটি পর্যালোচনা গত ৩ দিনে চালের দাম বেড়েছে
আমতলীর গ্রামীণ জনপদে আলোর পথ দেখাচ্ছেন গ্রাম আদালত

আমতলীর গ্রামীণ জনপদে আলোর পথ দেখাচ্ছেন গ্রাম আদালত

মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা প্রতিনিধি:
বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর কাছে দিনদিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে গ্রাম আদালত। শতভাগ মামলা নিষ্পত্তির মাধ্যমে মামলার জট নিরসনে আলোর পথ দেখাচ্ছেন গ্রাম আদালত।
জানাগেছে, বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক বাস্তবায়িত ইউএনডিপি ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সহযোগিতায় বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের অধীনে বরগুনার আমতলী উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ২০১৭ সাল থেকে গ্রাম আদালতের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত ৭টি ইউনিয়নের গ্রাম আদালতে মোট ১ হাজার ১ শত ২৫টি মামলা বিচারের জন্য গ্রহন করা হয়। যার মধ্যে ১ হাজার ৪৯টি মামলা নিষ্পত্তি করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্থ পক্ষকে ৭৩ লাখ ৭ হাজার ৬৯৬ টাকা আদায় করে দেওয়া হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাগেছে, সর্বোচ্চ৭৫ হাজার টাকা মূল্যমানের ফৌজদারি ও দেওয়ানী মামলা নিষ্পত্তি হয় গ্রাম আদালতে। স্ব-স্ব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, আবেদনকারী ও প্রতিপক্ষ মনোনিত দুইজন করে চারজন প্রতিনিধিসহ পাঁচ সদস্যের সমন্বয়ে গঠিত হয় এই আদালত। আদালত গঠিত হওয়ার পর ৭ দিনের মধ্যে সভা আহ্বান করা হয়। সভায় উভয় পক্ষের মধ্যে আপোষের মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয় আদালত। এতে বিরোধ নিষ্পত্তি না হলে বিচারিক প্রক্রিয়া শুরু করে তা নিষ্পত্তি করা হয়। গ্রাম আদালতে মামলা করতে নাম মাত্র ১০ ও ২০ টাকা ফি দিতে হয় বিচার প্রত্যাশীদের। সর্বোচ্চ ১২০দিনের মধ্যে এই মামলা নিষ্পত্তি করা হয়।
গ্রাম আদালতের উপজেলা সমন্বয়কারী মোঃ রকিবুল ইসলাম বলেন, এ উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে গ্রাম আদালত সক্রিয়ভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। মানুষ এখন গ্রাম আদালতমুখী হচ্ছেন।
আঠারোগাছিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ হাওলাদার বলেন, দেশের উ”চ আদালতগুলোতে যেখানে একটি মামলা বছরের পর বছর পড়ে থাকছে, সেখানে গ্রাম আদালতে অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা নিষ্পত্তি করা হচ্ছে। আশাকরি মামলার জট নিরসনে গ্রাম আদালত আলোর পথ দেখাবে।
আমতলী উপজেলা গ্রাম আদালত ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন বলেন, সরকারী সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেসব যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছেন গ্রাম আদালত তার মধ্যে একটি। মানুষ এখন আর ছোট-খাটো বিরোধ নিয়ে উ”চ আদালতে না গিয়ে গ্রাম আদালতে বিচার চাইছে। এর মাধ্যমে গ্রামের লোকজন তার এলাকাতেই নিজেদের মধ্যে দেওয়ানী ও ফৌজদারী বিরোধ নিষ্পত্তির সুযোগ পাচ্ছেন

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © bbsnews24 2020
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!