শিরোনাম :
পাটগ্রামে গোলাম রব্বানী প্রধান জনমতে এগিয়ে রাত চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২ ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বগুড়া আদমদিঘী বাজারে ও নওগাঁ পাইকারী বাজারে আলুর লাগামহীন মূল্যে -বিপাকে ক্রেতারা যশোরের নাভারণে ভেজাল শিশু খাদ্যসহ কারখানা মালিক আটক বাংলাদেশের রাকিমের তোলা ছবি ছয় হাজারেরও বেশি ছবির মাঝে সেরা চাঁপাইনবাবগঞ্জ ডিবি পুলিশের আবারও সাফল্য ; সোয়া ২ কেজি গাঁজা সহ গ্রেপ্তার ১ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে পৃথক অভিযানে অস্ত্র সহ ২ জন অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে র্র্যাব নোয়াখালীতে কিশোর গ্যাংয়ের ৭ সদস্য গ্রেফতার ঝিকরগাছায় ৭৪৮টি গভীর নলকূপ বিতরণ করলেন এমপি ডা. নাসির উদ্দিন সিভিল সার্জনের কথা উপেক্ষা করেই চলছে ঝিকরগাছার আয়সা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার
পতেঙ্গাজুড়ে পানির হাহাকার,৫৬ বছরেও ওয়াসা পৌঁছেনি পতেঙ্গায়

পতেঙ্গাজুড়ে পানির হাহাকার,৫৬ বছরেও ওয়াসা পৌঁছেনি পতেঙ্গায়

আব্দুল করিম চট্রগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি
পানির রাজ্যে পানি নেই। পশ্চিমে বঙ্গোপসাগর, পূর্বে কর্ণফুলী নদী— তবু চট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গাজুড়ে পানির জন্য হাহাকার। বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের অধিকাংশই চলছে পতেঙ্গা এলাকায়। অথচ সেখানে ওয়াসার জন্মলগ্ন থেকেই নেই পানির সংযোগ। পতেঙ্গার ৪০ এবং ৪১ নম্বর ওয়ার্ড— বন্দরনগরীর গুরুত্বপূর্ণ এ দুই ওয়ার্ডে রয়েছে প্রায় ৬ লাখ মানুষের বসবাস। এলাকাবাসী বলেন, বছরের পর বছর ধরে পতেঙ্গাজুড়ে বিশুদ্ধ পানির জন্য মানুষের হাহাকার থাকলেও এ নিয়ে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। উপকূলীয় এলাকা হওয়ার কারণে পানিতে লবণাক্ততা ও আয়রন আছে। এছাড়াও এলাকায় পর্যাপ্ত পুকুরের পাশাপাশি বর্ষায় পানি সংরক্ষণের কোন ব্যবস্থা নেই। পতেঙ্গার ডিপ টিউবওয়েল কিংবা টিউবওয়েলের পানি পান তো দূরের কথা, ধোয়ামোছার কাজেও ব্যবহার করা যায় না। তারপরও মানুষ বাধ্য হয়ে এ ময়লা পানি ব্যবহার করে। কাপড় ধুতে গেলে অতিরিক্ত আয়রনে কাপড় লাল হয়ে যায়।
জানা গেছে, পতেঙ্গার এই দুই ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের নির্ভর করতে হয় ভ্যানে বিক্রি করা জারের পানির ওপর। ভ্যানে বিক্রি করা এ পানি কতটুকু বিশুদ্ধ, কতটুকু নিরাপদ— তা যাচাই-বাছাই না করে সাধারণ মানুষ বিশুদ্ধ ভেবে জীবাণুযুক্ত এ পানি পান করে। এতে এলাকায় পানিবাহিত রোগ বাড়ছে। এ পরিস্থিতিতে পতেঙ্গায় বিনামূল্যে প্রতি সপ্তাহে পানি বিশুদ্ধকরণ ক্লোরিন ট্যাবলেট বিতরণ এবং একইসাথে বিশুদ্ধ খাবার পানির ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানানো হয়েছে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে।
নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এ দুই ওয়ার্ডে রয়েছে বাংলাদেশ নৌ-বাহিনী, বিমান বাহিনীর ঘাঁটি, বিমান বন্দর, পতেঙ্গা থানা, কর্ণফুলী ইপিজেড, ড্রাইডক, ইস্টার্ন রিফাইনারি, ইস্টার্ন ক্যাবলস, জি এম প্যালেনিং, পদ্মা, মেঘনা, যমুনা তেল কোম্পানিসহ বিভিন্ন সরকারি, বে-সরকারি প্রতিষ্ঠান। এসব সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত অধিকাংশ মানুষের বসবাস পতেঙ্গা থানাধীন ৪০ এবং ৪১ নম্বর ওয়ার্ডে। স্থানীয়রা ছাড়াও এখানে বসবাস করছে বিভিন্ন জেলার মানুষ। সরকারি সব প্রতিষ্ঠানে ওয়াসার সংযোগ থাকলেও সাধারণ মানুষের জন্য ওয়াসার কোন সংযোগ নেই এখানে। গ্রীষ্মকালে পানির ব্যাপক চাহিদা থাকলেও এলাকায় বসবাসরত এক একটি পরিবারকে ভ্যানচালকের কাছ থেকে ৪-৬ গ্যালন পানি কিনতে হয়। প্রতি গ্যালনে পানির ধারণক্ষমতা ৩০ লিটার এবং দাম গ্যালনপ্রতি ৩০ থেকে ৫০ টাকা।কর্ণফুলী ইপিজেডে কর্মরত গার্মেন্টস কর্মী আমেনা বেগম বলেন, মাইজপাড়া এলাকায় প্রায় ২ বছর ধরে বসবাস করছি। সারা মাস চাকরি করে যা বেতন পাই তা ঘর ভাড়া এবং পানির পেছনে ব্যয় হয়। সংসারে সদস্য সংখ্যা বেশি। প্রতি মাসে দেড় থেকে দুই হাজার টাকার পানি প্রয়োজন হয়। আশপাশে পুকুরের পানি থাকলেও তা ময়লাযুক্ত হওয়ায় ব্যবহারের অযোগ্য।অভিযোগ রয়েছে, বন্ধের দিনে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে আসা দর্শনার্থীদের বোতলজাত পানি কিনতে হয় দ্বিগুণ দামে। এছাড়াও রেস্টুরেন্টগুলোতে দ্বিগুণ দামে পানি বিক্রির বিষয়টিতে কর্তৃপক্ষেরও নজর নেই।এ বিষয়ে ৪০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘পতেঙ্গাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি বিশুদ্ধ পানি। পতেঙ্গায় এত উন্নয়ন হচ্ছে অথচ ওয়াসার কোন সংযোগ নেই। বিশুদ্ধ পানির অভাবে এখানকার মানুষ নানা পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।এ বিষয়ে ৪১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালেহ আহমেদ চৌধুরী বলেন, ‘বিশুদ্ধ পানির দাবিতে ওয়াসাসহ বিভিন্ন দপ্তরে স্মারকলিপি দিয়েছি। সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে ডিপ টিউবওয়েলের পানি ব্যবহার করছে এলাকাবাসী। রোগব্যাধি থেকে রক্ষা পেতে বিশুদ্ধ পানির কোন বিকল্প নেই।এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম ওয়াসার প্রকৌশলী ব্যবস্থাপনা পরিচালক একেএম ফজলুল্লাহ বলেন, ‘সিটির ভেতর যেসব এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সংযোগ নেই সিটি মেয়র ও কাউন্সিলরদের সমন্বয়ে সেসব এলাকায় বিশুদ্ধ পানি সংযোগ দেওয়ার কাজ করে যাচ্ছি। ২০২২-২৩ সালের মধ্যে পুরো সিটি বিশুদ্ধ পানির আওতায় আনার চেষ্টা করছি আমরা। প্রকল্পটি বর্তমানে চলমান।

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © bbsnews24 2020
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!