Logo
শিরোনাম :
ঘুমধুমে বিজিবি-মাদক কারবারি গোলাগুলি, এক রোহিঙ্গা নিহত ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃবৃন্দের সাথে নিয়ে মরহুম পিতার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তারেক রহমান চৌধুরী পাপ্পু লামায় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ২৪টি ঘর পাচ্ছেন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী রংপুরে দুটিতে ঢোল, একটিতে জয়ী নৌকা জয়পুরহাট পৌরসভার মেয়র মোস্তাকের উদ্যোগে ৪ হাজার পরিবারের মাঝে পূজার উপহার বিতরন এক কৃষিপণ্য হতে ৪ বার টোল আদায়, প্রতিকার চেয়েছে কৃষকরা কলারোয়ার কেরালকাতা ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন-২০২০” স.ম মোরশেদ আলী নৌকা প্রতীক নিয়ে ৬৮০৫ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল’ উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস-২০২০’ উদযাপিত কলসকাঠী ইউপি উপ-নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী নির্বাচন কমিশন আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনে পরিণত হয়েছে–ফখরুল

একজন নির্ভীক পুলিশ কর্মকর্তা সদ‌্য বিদায়ী ইমন কান্তি চৌধুরী

নুর মোহাম্মদ সিকদারঃ
বান্দরবানের দক্ষিণে ও মায়ানমার সীমান্ত ঘেষা ঘুমধুম ইউনিয়ন হওয়ায় অন্যান্য যে কোন ইউনিয়ন থেকে এখানে আইন শৃঙ্খলা রক্ষা অনেক বেশী কঠিন।তারপরেও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নিরলস প্রচেষ্টায় অনেকটা শান্তিপূর্ণ পরিবেশ রয়েছে এই এলাকায়। বিশেষ করে ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ বাহিনীর দিবারাত্রি সেবা ও সময়োপযোগী নানামুখী উদ্যোগ প্রশংসার দাবিদার।

যে কথা না বললেই নয়, বিগত যে কোন সময়ের চেয়েও ঘুমধুমে বর্তমান আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেক সুন্দর। সাধারণ জনগণের সাথে পুলিশের সম্পর্ক বন্ধুত্বপূর্ণ। আন্তরিক সেবা ও বিপদের সময় সহযোগিতা প্রদান করায় এখন মানুষ পুলিশকে সেবক ও বন্ধু ভাবতে শুরু করে। যার মূলে রয়েছে নাইক্ষ‌্যংছড়ি থানার ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) সদ‌্য বিদায়ী ইমন চৌধুরী’র এর বিচক্ষণতা ও তার পুলিশ টিমের আন্তরিকতা।

 

বিগত সকল সময়ের তুলনায় ডাকাতি, চুরি, মাদকের আধিপত্য, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, নারী-শিশু নির্যাতন ও পাহাড়ি সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের চাঁদাবাজি-হামলা কমেছে। এর মূলে রয়েছে ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইমন কান্তি চৌধুরী’র নেতৃত্বে তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের জিরো টলারেন্স নীতি।গভীর রাতে আমরা যখন পরিবার পরিজন নিয়ে সুখের নিদ্রায় বিভোর তখন কনকনে শীতে সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যদের নিয়ে দিচ্ছেন গ্রাম পাহারা। আতংকিত মানুষকে কিছুটা স্বস্তি দিয়ে নিজের সুখকে করেছে বিসর্জন। সারারাত পাহারা দিয়ে জনগণের জান-মাল করেছেন সুরক্ষিত। নিরাপদে মানুষ ফিরছে নিজের ঠিকানায়।এতে করে বৃদ্ধি পেয়েছে জনসচেতনতা। সবচেয়ে বেশী লক্ষ্যনীয় বিষয় হল, যে কোন ঘটনাকে গুরুত্ব দিয়ে তড়িৎ নেয়া হচ্ছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা। ইমন কান্তি চৌধুরী সম্পর্কে এলাকার মানুষের অভিমত তিনি পুলিশ নয় দেবতা,ইমন স‌্যারের এ বিদায় যেন ঘুমধুম বাসীর অশ্রু ঝড়া বিদায়।এ বিদায় মেনে নিতে পারছেনা ঘুমধুমের সাধারন কেটে খাওয়া জনসাধারণ।

‘পুলিশ জনতা, জনতাই পুলিশ’… এই যেন এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। এগিয়ে যাক ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র, এগিয়ে যাক বাংলাদেশ পুলিশ। পরিশেষে ঘুমধুম তদন্ত কেন্দ্রের বিদায়ী তদন্ত ওসি ইমন কান্তি চৌধুরী ও সকল পুলিশ সদস্যকে ঘুমধুম বাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!