Logo
শিরোনাম :
আশাশুনিতে সাংবাদিক সাহেব আলীর ভাইয়ের দাফন সম্পন্ন মহা নবমীতে সদরের বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ চাঁপাইনবাবগঞ্জে মারামারি মামলার আসামি মায়ের কোলে চড়ে আদালতে।। মামলা খারিজ বাঁচতে চায় শিশু নাতিশা রংপুরে ৩০ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি করছে আড়তদাররা বেনাপোল ফিলিং স্টেশনের বিক্রিত পেট্রোলে কেরোসিন মিশ্রন থাকার অভিযোগ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে এমপি শিমুলের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের উদ্বোধন বেনাপোলে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার মাসিক সভা অনুষ্ঠিত ঝিনাইদহে মৃত মানুষও পাট চাষের প্রণোদনার টাকা নিয়েছে ! নোয়াখালীর চাটখিলে এক ভূয়া সিআইডি কর্মকর্তা আটক।

আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর উপড় নির্মিত বেইলি ব্রীজটি মরণ ফাঁদে পরিণত,যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় দূর্ঘটনা!

মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা প্রতিনিধি:
বরগুনার আমতলী- তালতলী- ফকিরহাট সড়কের আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর উপড় নির্মিত বেইলি ব্রীজটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। যে কোন সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের কোন দূর্ঘটনা। দুই বিভাগের রশি টানাটানিতে সংস্কার হচ্ছে না ব্রীজটি। দ্রুত ব্রীজটি সংস্কার করা না হলে দু’উপজেলার দু’লক্ষাধীক মানুষের সড়কপথে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম এ সড়কটিতে যান চলাচল যে কোন সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

জানাগেছে, আমতলী উপজেলা সদর থেকে তালতলী উপজেলা সদরে সড়কপথে যাতায়াতের জন্য সড়কটির আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর উপর ১৯৮৫ সালে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ একটি ষ্টীলের বেইলি ব্রীজ নির্মাণ করেন। এ ব্রীজটি দিয়ে প্রতিদিন আমতলী ও তালতলী উপজেলার দু’লক্ষাধিক মানুষ যাতায়াত করে। এই বেইলি ব্রীজটি পার হয়ে ঢাকা- বরিশাল- আমতলী- তালতলী রুটে পরিবহন বাস, তালতলী জয়ালভাঙ্গায় নির্মানাধীন তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মালামাল বহনকারী ভাড়ী ট্রাক, প্রাইভেটকার, মাহেন্দ্রা, ট্রলি, ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা, মোটর সাইকেলসহ শতাধীক গাড়ী প্রতিদিন চলাচল করে। দীর্ঘদিন বেইলি ব্রীজটি সংস্কার না করায় অধিক সংখ্যক গাড়ী চলাচল করায় দিন দিন ব্রীজটি নড়বড়ে হয়ে পড়ে। ব্রীজের পাটাতন আলগা হয়ে সরে গেছে। যানবাহনগুলো বেইলি ব্রীজে উঠার সাথে সাথে ঠকঠক শব্দ করে নড়ে। ব্রীজের মাঝখানের পাটাতন দেবে গেছে। প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে যানবাহনগুলো ব্রীজটি পার হচ্ছে । যে কোন সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের কোন দূর্ঘটনা।

আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী বিভাগ ও বরগুনা সড়ক ও জনপথ বিভাগের রশি টানাটানিতে ৪২ কিলোমিটার আমতলী- তালতলী- ফকিরহাট সড়কের আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর উপড় নির্মিত ষ্টীলের বেইলি ব্রীজটি সংস্কার করা হচ্ছে না। আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) বিভাগের দাবী আমতলী- তালতলী- ফকিরহাট সড়কটি সড়ক ও জনপথ বিভাগ এলজিইডির কাছ থেকে নিয়ে গেছে। তাই ওই ব্রীজের দেখভালের দায়িত্ব এখন তাদের।
অপরদিকে বরগুনা সড়ক ও জনপথ বিভাগ দাবী করছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগ এলজিইডির কাছ থেকে ওই সড়কটি আনার প্রক্রিয়া চলছে। এখনো পর্যন্ত সড়কটি আনা হয়নি। যতক্ষন পর্যন্ত আনা না হবে ততক্ষন পর্যন্ত সড়কটির সকল কিছুর দেখভাল এলজিইডি করবেন। তাই ওই ব্রীজটি তারাই সংস্কার করবেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, ব্রীজের মাঝখানের পাটাতন দেবে নড়বড়ে হয়ে গেছে। ঝুকিপূর্ণ ব্রীজের উপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি যানবাহনগুলো পারাপার করছে।আড়পাঙ্গাশিয়া বাজারের ব্যবসায়ী সরোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ব্রীজটি সংস্কার না হওয়ায় এখন ব্রীজটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। দ্রুুত এ ব্রীজটি সংস্কার করা প্রয়োজন।

ইউপি সদস্য আবুল কালাম বলেন, ব্রীজের এ বেহাল দশার কথা উপজেলা প্রকৌশলীকে জানিয়েছি। দ্রুত ব্রীজটি সংস্কার করা না হলে যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।

আড়পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ হুমায়ূন কবির বলেন, বেইলি ব্রীজটি পুরাতন হওয়ায় ও সংস্কার না করায় ভারী যানবাহনগুলো পারাপারের সময় ওজন নিতে পারছে না। এ কারনে ব্রীজের পাটাতন দেবে গেছে। বড় ধরনের দূর্ঘটনা রোধে দ্রæত ব্রিজটি সংস্কার করা প্রয়োজন।

যাত্রীবাহী বাসগাড়ী চালক আঃ সালাম বলেন, নড়বড়ে বেইলি ব্রীজ দিয়ে প্রতিদিন ঝুকি নিয়ে গাড়ী পারপার করতে হচ্ছে । জানিনা কখন কি হয়। তাই দ্রæত ব্রীজটি সংস্কারের দাবী জানাই।

উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ওই সড়কটি আমাদের কাছ থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগ নিয়ে গেছে। ওই সড়কের আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর উপড় নির্মিত ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি ব্রীজটি তারাই সংস্কার করবেন।

বরগুনার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ কামরুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, আমতলী-তালতলী- ফকিরহাট সড়কটি স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) কাছ থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগে আনার প্রক্রিয়া চলমান আছে। এখনো ওই সড়কটি এলজিইডির অধিনেই আছে। তাই আড়পাঙ্গাশিয়া নদীর উপড় নির্মিত বেইলি ব্রীজটি তারাই সংস্কার করবেন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!