Logo
শিরোনাম :
আশুলিয়ায় র‍্যাবের অভিযানে মাদক ও মিনি ক্যাসিনো বোর্ডসহ ২১ জুয়ারী আটক নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে সাভার থানা পুলিশের র‌্যালী বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে চাই নবনির্বাচিত কোষাধ্যক্ষ হাজী মোঃ সাহাজউদ্দিন সাভারের বিরুলিয়ায় বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে হাজী মোঃ সেলিম মন্ডল নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্ত থেকে ১০ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করেছ বিজিবি টানা ১০ দিন মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম, নতুন শনাক্ত ৩২ সাংবাদিকতাকে ছাপিয়ে মানব কল্যাণে নিবেদিত আমেরিকা প্রবাসী শরীফ উদ্দীন সন্দ্বীপি সাংবাদিকতাকে ছাপিয়ে মানব কল্যাণে নিবেদিত আমেরিকা প্রবাসী শরীফ উদ্দীন সন্দ্বীপি শারদীয় দূ্র্গাপুজা উপলক্ষে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশের উপহার প্রদান চুনারুঘাটে আহম্মদাবাদ ইউনিয়ন কৃষকলীগের ২ ওয়ার্ড কমিটি গঠন ও আলোচনা সভা

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে গরিবের ৭ লক্ষাধিক টাকা নিয়ে এনজিও লাপাত্তা

ফয়সাল আজম অপু, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে গ্রাহকদের ৭ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়ে “বাংলাদেশ গ্রামীন উন্নয়ন সোসাইটি” নামের একটি এনজিও উধাও হয়ে গেছে। খবর পেয়ে ভুক্তভোগী সদস্যরা এনজিওটির অফিসের মালামাল ভাগাভাগি নিয়ে টানাটানি শুরু করে। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার কসবা ইউনিয়নের এলাইপুর বাজারে বাংলাদেশ গ্রামীন উন্নয়ন সোসাইটির কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এনজিওটির সদস্য শ্রীপতি কর্মকার বলেন, ‘বাংলাদেশ গ্রামীন উন্নয়ন সোসাইটি’ নামের একটি এনজিও কসবা ইউনিয়নের এলাইপুর বাজারে একটি অফিস ভাড়া নিয়ে গত ছয় মাস ধরে ঋনদান ও সঞ্চয় সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। তারা আমাদের এলাকায় গিয়ে ঋণ দিবে বলে জনপ্রতি সাড়ে সাত হাজার, পাঁচ হাজার ও তিন হাজার টাকা করে সঞ্চয় নিয়েছে। চার মাস আগে এনজিওটির মালিক এক লাখ টাকায় বছরে আমাকে ২৪ হাজার টাকা লাভ দেয়ার শর্তে আমাকে সদস্য করে। আমার কাছে থেকে তারা এক লাখ টাকা সঞ্চয় হিসাবে নিয়েছে। এক সপ্তাহ ধরে আমি তাদের অফিসে সঞ্চয়ের টাকা আনতে গিয়ে দেখি, তাদের অফিসে তালা মারা আছে। পরে আমি এনজিওর মালিক নাইমকে ফোন দিলে মালিকের ফোন নম্বরটি বন্ধ পাই। কয়েকদিন পর লোক মুখে শুনতে পাই যে, এনজিওটি পালিয়ে গেছে। আমি সোমবার দুপুরে সেই অফিসের মালামাল নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে অন্য গ্রাহকরা মালামাল ভাগাভাগি করতে চাইলে আমাদের মধ্যে হট্টগোল বাধে।’

মিলি খাতুন ও ফারুক নামের দু’জন সদস্য বলেন, দুই মাস আগে বাংলাদেশ গ্রামীন উন্নয়ন সোসাইটি নামের একটি এনজিওর মালিক নাইম ইসলাম আমাদের অল্প সুদে মোটা অংকের লোন দিবে বলে জানায়। এনজিও মালিকের কথামত সঞ্চয় হিসাবে বাংলাদেশ গ্রামীন উন্নয়ন সোসাইটি নামের এনজিওটিতে আমরা দু’জনে ৪০ হাজার করে মোট ৮০ হাজার টাকা সঞ্চয় জমা রাখি। এক সপ্তাহ আগে আমাদের লোন দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেদিন অফিসে গিয়ে দেখি যে অফিসটি তালাবদ্ধ। পরে আমরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারি, বাংলাদেশ গ্রামীন উন্নয়ন সোসাইটি নামের এনজিওটি সদস্যদের প্রায় ৭ থেকে ৮ লাখ টাকা নিয়ে লাপাত্তা হয়েছে। সোমবার দুপুরে অফিসের তালা ভেঙ্গে মালামাল নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে অন্য সদস্যরাও তাদের সঞ্চয়ের টাকার বিনিময়ে সেই মালামাল ভাগাভাগি করতে গেলে আমাদের সাথে হট্টগোল বাধে। প্রতারকদেরকে সনাক্ত করে ভুক্তভোগি সদস্যদের কষ্টের টাকা ফিরিয়ে দেয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি আমরা।

বাংলাদেশ গ্রামীন উন্নয়ন সোসাইটি এনজিও’র মালিক নাইম ইসলামের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার ব্যবহৃত ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
নাচোল মানবাধিকারের সাধারণ সম্পাদক হেলাল জানান, এই এলাকায় আমার বাসা। প্রায় ছয় মাস ধরে বাংলাদেশ গ্রামীণ উন্নয়ন সোসাইটি নামের একটি এনজিও এলাইপুর বাজারে তাদের ঋনদান ও সঞ্চয় কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। সোমবার দুপুরে দেখি অফিসের সামনে সদস্যরা মালামাল ভাগাভাগি নিয়ে টানাটানি করছে।

এ বিষয়ে নাচোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবিহা সুলতানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কোন এনজিও এমআরএ ছাড়া এই উপজেলায় ঋনদান কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না। সকল এনজিওর মালিককে এমআরএ লাইসেন্স জমা দিতে বলা হয়েছে। কথিত এনজিওটির বিরুদ্ধে খুব শীঘ্রই অভিযান পরিচালনা করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!