Logo
শিরোনাম :
শার্শায় ফেনসিডিল ও মোটরসাইকেল সহ একাধিক মাদক মামলার আসামী আটক ঠাকুরগাঁওয়ে নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার সাবধানে চালাবো গাড়ি, নিরাপদে ফিরবো বাড়ি- নিরাপদ সড়ক দিবসে উদ্ভাক মিজান……………. চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ ফাঁড়ির মাদক বিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ২ ঈশ্বরদীতে ৫০ লিটার চোলাই মদসহ দুই মাদক ব‍‍্যবসায়ীকে আটক করেছে ঈশ্বরদী থানা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জে রুপালী এনজিওর মালিক উজ্জল কোটি টাকা নিয়ে উধাও বেনাপোলে ফেনসিডিল সহ মোটরসাইকেল উদ্ধার নৌযান শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার আশাশুনিতে রাস্তা ও মন্দির পরিদর্শন এবং মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করলেন ইউএনও বাকেরগঞ্জ উপজেলার সনাতন ধর্মাবলম্বীর সবাইকে শারদীয় দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদক মামলায় এক জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত

ফয়সাল আজম অপু, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দায়েরকৃত একটি মামলায় মো.আলম ওরফে তাজিমুল (৪৫) নামে একজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদ্বন্দের আদেশ দিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের একটি আদালত।
সেই সাথে তাকে এক লক্ষ টাকা অর্থদ্বন্দ অনাদায়ে আরও ১ বছর বিনাশ্রম কারাদ্বন্দের আদেশ দেয়া হয়েছে। এক কেজি আটান্ন গ্রাম হেরোইন বিক্রির উদ্দেশ্যে নিজ হেফাজতে রাখার অপরাধে তাকে এই সাজা প্রদান করা হয়।

বুধবার (৪ মার্চ) দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শওকত আলী একমাত্র আসামির উপস্থিতিতে এ দ্বন্ডাদেশ ঘোষণা করেন। দন্ডিত আলম সদর উপজেলার শাজাহানপুর ইউনিয়নের হাকিমপুর গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে।

মামলার বরাত দিয়ে রাষ্টপক্ষের আইনজীবী আঞ্জুমান আরা জানান, ২০১৭ সালের ২৭ নভেম্বর সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার শাজাহানপুর ইউনিয়নের নরেন্দ্রপুর মোল্লাপাড়া গ্রামের একটি বাঁশ ঝাড়ে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে ১ কেজি ৫৮ গ্রাম হেরোইন ও ২লক্ষ ভারতীয় রুপীসহ গ্রেফতার হয় আলম কে। এ ঘটনায় ওইদিন আলমের বিরুদ্ধে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের পৃথক দু’টি ধারায় মামলা করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‌্যাব ক্যাম্পের তৎকালীন উপপরিদর্শক (এসআই) মোস্তাকিন হোসেন। মামলার তদন্ত্র কর্মকর্তা ও সদর থানার তৎকালীন উপপরিদর্শক (এসআই) আমিনুল ইসলাম ২০১৮ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি আলমকে একমাত্র অভিযুক্ত করে আদালতে চার্যশীট দাখিল করেন।

৮ জনের সাক্ষ্য, প্রমাণ ও শুনানীর পর আদালত আলমকে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে সাজা ঘোষণা করেন। আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এড. মাহবুব আলম জুয়েল। উল্লেখ্য, দ্বন্ডিত ব্যাক্তির বিরুদ্ধে ভারতীয় রুপী হেফাজেত রাখার দায়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়েরকৃত অপর মামলাটিও বিচারাধীন রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!