Logo
শিরোনাম :
চাঁপাইনবাবগঞ্জে মারামারি মামলার আসামি মায়ের কোলে চড়ে আদালতে।। মামলা খারিজ বাঁচতে চায় শিশু নাতিশা রংপুরে ৩০ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি করছে আড়তদাররা বেনাপোল ফিলিং স্টেশনের বিক্রিত পেট্রোলে কেরোসিন মিশ্রন থাকার অভিযোগ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে এমপি শিমুলের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের উদ্বোধন বেনাপোলে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার মাসিক সভা অনুষ্ঠিত ঝিনাইদহে মৃত মানুষও পাট চাষের প্রণোদনার টাকা নিয়েছে ! নোয়াখালীর চাটখিলে এক ভূয়া সিআইডি কর্মকর্তা আটক। হরিণাকুণ্ডুর এক মেধাবী ছাত্রী’র কিডনি বিকল চিকিৎসার জন্য বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আবেদন আশুলিয়ায় র‍্যাবের অভিযানে মাদক ও মিনি ক্যাসিনো বোর্ডসহ ২১ জুয়ারী আটক

হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের ৪ বারে চেয়ারম্যান ‘পইলের সাবের ইন্তেকাল

মীর জুবায়ের আলম : হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চারবারের চেয়ারম্যান ‘পইলের সাব’ খ্যাত আলহাজ্ব সৈয়দ আহমদুল হক না ফেরার দেশে ফাড়ি জমিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে সদর উপজেলা পইল গ্রামে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন সবার প্রিয় আহমদুল হক। ইন্নালিল্লহি …. রাজিউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। তিনি দুই ছেলে, এক মেয়ে ও স্ত্রীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী ও আত্মিয়স্বজন রেখে গেছেন।

সৈয়দ আহমদুল হকের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়- বেশ কিছু দিন ধরেই তিনি বার্ধক্যজনিত কারণে বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার উন্নত চিকিৎসা করানো হয়। কিন্তু এতে কোন উন্নতি হয়নি। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে পইল গ্রামে নিজ বাড়িতে তিনি ইন্তেকাল করেন।

এদিকে, মাঝরাতে ইন্তেকাল করলেও সংবাদ পেয়ে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার ভক্ত ও শুভাকাঙ্খিরা তার বাড়িতে ছুটে যান। এলাকার নারী-পুরুষসহ সকল বয়সী মানুষ কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ সময় সেখানে এক হৃদয় বিধারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। আজ শুক্রবার বিকেল ৩টায় পইল ঈদগাঁ মাঠে তার জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। পরে মা-বাবার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হবে তাকে।

আলহাজ্ব সৈয়দ আহমদুল হক সারা জেলাবাসীর এক পরিচিত মূখ। সাদা মনের মানুষ হিসেবে তিনি সর্বমহলের আস্থা অর্জন করেছেন। সালিশ বৈঠকের ন্যায় বিচারক হিসেবেও তার রয়েছে বিশেষ খ্যাতি।

১৯৪৯ সালের ৩১শে জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার পইল গ্রামের সাহেব বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন সৈয়দ আহমদুল হক। বাবা সৈয়দ জাহেদুল হক ছিলেন পইল ইউনিয়নের বারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান। আহমদুল হক ১৯৬৮ সালে বৃন্দাবন সরকারি কলেজ থেকে বিকম ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর কয়েক বছর একটি স্কুলে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। পরে সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে চাকরিতে যোগদান করেন। একপর্যায়ে জনগণের চাওয়ার মূল্যায়ন করতে তিনি সরকারি চাকরি ছেড়ে নির্বাচন করে কয়েক টার্ম পইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। দীর্ঘ ২৪ বছর তিনি সেখানে চেয়ারম্যান হিসেবে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৮৫ সালে প্রথম সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচিত হন। এরপর সবক’টি উপজেলা নির্বাচনে তিনি বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হন। সেখানেও চার বার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বপালন করেন। সবশেষ ২০১৯ সালের ১০ মার্চ অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মোতাচ্ছিরুল ইসলামের কাছে পরাজিত হন তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!