Logo
শিরোনাম :
ঘুমধুমে বিজিবি-মাদক কারবারি গোলাগুলি, এক রোহিঙ্গা নিহত ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃবৃন্দের সাথে নিয়ে মরহুম পিতার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তারেক রহমান চৌধুরী পাপ্পু লামায় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ২৪টি ঘর পাচ্ছেন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী রংপুরে দুটিতে ঢোল, একটিতে জয়ী নৌকা জয়পুরহাট পৌরসভার মেয়র মোস্তাকের উদ্যোগে ৪ হাজার পরিবারের মাঝে পূজার উপহার বিতরন এক কৃষিপণ্য হতে ৪ বার টোল আদায়, প্রতিকার চেয়েছে কৃষকরা কলারোয়ার কেরালকাতা ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন-২০২০” স.ম মোরশেদ আলী নৌকা প্রতীক নিয়ে ৬৮০৫ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল’ উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস-২০২০’ উদযাপিত কলসকাঠী ইউপি উপ-নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী নির্বাচন কমিশন আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনে পরিণত হয়েছে–ফখরুল

ঘুমধুমে স্বামীর দাসত্বের সংসার থেকে মুক্তি চাইলেন তালাক নামা সম্পাদন করে…….

নিজস্ব প্রতিবেদক,উখিয়া,কক্সবাজারঃ

স্বামীর অবাধ্যতা,শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন,
কথায়-কথায় মুখে তালাক উচ্চারণ,সমাজে লোকমুখে হেয় প্রতিপন্ন করা,শরীয়ত বিরোধী কথা-বার্তা বলা,প্রবাসে থাকতে দ্ধিতীয় বিবাহ,তাঁর সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলা,সাংসারিক দায়িত্ব পালনে অবহেলা,স্ত্রী হিসেবে গুরুত্ব বা মর্যাদা না দেওয়া,স্ত্রীর নামে স্থানীয় ঋনদান সংস্থা থেকে লাখ-লাখ টাকা ঋন গ্রহণ, স্ত্রীর নামে কিস্তিতে গাড়ী ক্রয় করে কিস্তি পরিশোধ না করে ১০/১২ লাখ টাকার ঋনের বোঝা চাপিয়ে দেওয়া,কিস্তির টাকা পরিশোধ না করাই ব্যক্তিগত মান মর্যাদা ক্ষুন্ন,পারিবারিক, সামাজিক ভাবে লাঞ্চনা করা,কথায়-কথায় তালাক উচ্চারণ করে ধর্মীয় আচরণ লঙ্ঘন করা,সমাজ এবং মসজিদ কমিটির নিকট একঘরে হওয়া,১০/১২ বছরের স্ত্রীর চাকরীর উপার্জিত অর্থ আত্নসাত করা,ঠিকমত খোরপোষ প্রদানে ব্যর্থ হওয়া,স্ত্রীর ৭ ভরি স্বর্ণালংকার আত্নসাত করা,সর্বোপরি স্ত্রীর নামীয় কিস্তিতে ক্রয় করা পিকআপ গাড়ী স্বামী নিজেই চালিয়ে বিগত ১৩/১৪ মাস ধরে কিস্তি পরিশোধ না করে আত্নসাত এবং গাড়ী লোকিয়ে রাখা,
প্রায় ১০/১২ লাখ টাকার দেনার বোঝা মাথায় চাপিয়ে দেওয়াসহ ২০ লাখ টাকার লেনদেন নিয়ে প্রায়শই বাকবিতন্ডা থেকে শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন চালিয়ে স্ত্রীর শরীরে ক্ষত বিক্ষত আঘাত করার অভিযোগ এনে স্বামী নামধারী নরপশুর দাসত্বের সংসারের কবল থেকে মুক্তি পেতে স্বামীকে তিন তালাক বায়েন নামা সম্পাদন করেছে স্ত্রী।গত ১২ মার্চ স্বশরীরে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নোটারী পাবলিক কার্যালয়ে হাজির হয়ে দুইজন আইনজীবি,৩ জন স্বাক্ষীর উপস্থিতিতে এ তালাকের হলফ নামা সম্পাদন করেছে স্ত্রী বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের জলপাইতলী গ্রামের আবদুল করিমের মেয়ে শামিমা সোলতানা।তালাক নামা সম্পাদনের কপি রেজিস্ট্রোর্ড ডাক যোগে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, কাজী অফিস,তালাক গ্রহীতার বরাবর পাঠিয়েছে।তালাক প্রাপ্ত স্বামী একই এলাকার সৌদি আরব প্রবাসী হাজী ছৈয়দ আলমের ছেলে জহির আহমদ ওরপে জকির আহমদ।
ইতিপূর্বের ঘটনায় জানাগেছে,গত ২৪ জানুয়ারী দিনের বেলা ১২ টায় ঘুমধুমের স্বঘোষিত ইউনিয়ন যুবদল সাধারণ সম্পাদক জহির আহমদের পৈশাচিক নির্যাতনের শিকারে হয়ে জানে বাঁচতে ঘরছাড়া হয়েছিল স্ত্রী।
স্বামীর নির্যাতনে রক্তাক্ত এনজিওকর্মী স্ত্রী পৈতৃক বাড়িতে গুরুতর জখমাবস্থায় চিকিৎসাধীন ছিল।এ ব্যাপারে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় সাধারণ ডায়েরি করে আদালতে মামলার প্রক্রিয়া চালালেও দরিদ্র হওয়ায় পুলিশের কাছে রহস্যজনক কারণে বিচার বঞ্চিত হয়ে সংসারে ফিরেছিল গত ৩০ জানুয়ারী। কিন্তু সুখ হয়নি, উপরন্তু নির্যাতনের মাত্রা আরো বেড়ে গিয়ে ১১ মার্চ স্ত্রী শামিমা সোলতানাকে বেধড়ক মেরে রক্তাক্ত জখম করে গভীর রাতে।
তালাক দেওয়া স্ত্রী নির্মম নির্যাতনের শিকার
ভুক্তভোগী নারী ঘুমধুম ইউনিয়নের খিজারীঘোনার আবদুল করিমে কন্যা,পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বাস্তবায়নাধীন টেকসই সামাজিক সেবা প্রদান প্রকল্পের ঘুমধুমের ১৭ নং ক্লাস্টারের মাঠ সংগঠক(এফও) শামিমা সোলতানা জানান,বিগত ১৩ বছর পূর্বে একই এলাকার সৌদি আরব প্রবাসী হাজী ছৈয়দ আলমের ছেলে তৎকালীন প্রবাসী জহির আহমদের সহিত রেজিষ্ট্রেশন কাবিন নামা সম্পাদন ও ইসলামী শরীয়ত মতে বিয়ে হয়।বিয়ের পর বেশ কিছুদিন দাম্পত্য জীবন সুখের ছিল।
জিবিকার তাগিদে জহির আহমদ ফের সৌদি আরব প্রবাসে চলে গিয়ে সেখানে আরও একটি বিয়ে করে।বিগত ৫ বছর পূর্বে ধরা খেয়ে জেল খেটে দেশে চলে আসে,বেকার জীবনযাপন করতে থাকে।স্বামীর বেকারত্ব চিন্তা করে আশা,গ্রামীণ, ব্র‍্যাক ব্যাংক থেকে প্রায় ৪ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে গত ২ বছর পূর্বে কক্সবাজারস্থ রানার মোটরস শোরুম থেকে ১৪ লাখ টাকা মূল্যে কিস্তিতে একটি মিনি ট্রাক গাড়ি কিনে দেন।উক্ত গাড়ি স্বামী জহির আহমদ নিজেই চালিয়ে গাড়ীর কিস্তি এবং ব্যাংকের কিস্তি পরিশোধ করতেন।গত ৪/৫ মাস সহ প্রায় এক বছর ধরে গাড়ির কিস্তি ও ব্যাংক কিস্তি পরিশোধ করছেনা।এনিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়শই ঝগড়া হতো।বিভিন্ন ব্যাংক ও গাড়ির কিস্তি পরিশোধ নিয়ে শামিমা সোলতানা রেহেনা চরম বেকায়দায় পড়েন।
কিস্তির টাকা নিয়ে পূর্বের মত গত ২৪ জানুয়ারী দিনের বেলা ১২টায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জহির আহমদ স্ত্রী শামিমা কে শারিরীক ভাবে বেধড়ক মারধর,শরীরের বিভিন্ন অংগে নীলাফোলা জখম করতঃ এক কাপড়ে তাড়িয়ে দেয়।এবং ভবিষ্যতে বাড়ি ফেরার চেষ্টা করলে তালাক দিয়ে প্রানে মারার হুমকি দিয়েছিল।শামিমার ঘরে রক্ষিত,নিজের উপার্জিত অর্থ দিয়ে কেনা,দেড় লাখ টাকা মূল্যের কাপড়চোপড়, আসবাবপত্র, গুরুত্বপূর্ণ কাগজ,এনআইডি, জন্ম সনদ,শিক্ষাসনদ,শামিমার প্রবাসী ভাই আব্দুল্লাহর এনআইডি,জন্ম সনদ সহ গুরুত্বপূর্ণ রান্নাবান্নার সামগ্রী তালা ভেংগে লুটে নিয়ে যায়।শামিমার নিজস্ব সামগ্রী ছাড়াও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের রক্ষিত একটি অফিসিয়াল আলমিরা ভেংগে গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টসগুলো গায়েব করে ফেলেছিল। বর্তমানে গাড়ির কিস্তি, এনজিওর কিস্তি সহ ১০/১২ লাখের বেশী ঋণের টাকার বোঝা মাথায় নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে শামিমা সোলতানা।

স্বামী পরিচয়ী কথিত যুবদল নেতা জহির আহমদের প্রান নাশের হুমকিতে শামিমা সোলতানার বাবার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিনরাত পার করছে।এখনো প্রায় প্রতিরাত ও দিনে শামিমা সোলতানার বাবার বাড়িতে গিয়ে প্রাননাশের হুমকিসহ মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে তিলে তিলে মারবে বলে হুংকার দিচ্ছে।ফলে জানমালের নিরাপত্তা নিয়ে চরম আশংকায় রয়েছে শামিমা সোলতানা সহ তার বাবার পরিবার।
গত ২৪ জানুয়ারী নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় লিপিবদ্ধ করা সাধারণ ডায়েরি সুত্রে ওসি মোঃআনোয়ার হোসেন জানান,বিষয়টি তদন্ত পূর্বক উভয় পক্ষের মাঝে বৈঠক হয়েছিল,এখনো থানায় প্রতিবেদন কিংবা আপোষনামা পাঠাইনি।
ঘুমধুম পুলিশ কেন্দ্রের ইনচার্জ ওসি তদন্ত মোঃ দেলোয়ার হোসেন বলেন, এ সংক্রান্ত অভিযোগ এসআই মিন্টু কুমার ধর এর নিকট রয়েছে,যা তৎকালীন ইনর্চাজ ইমন কান্তি চৌধুরীর মধ্যস্থতায় আপোষ মিমাংসা হয়েছে জেনেছি।ঘুমধুমের শামিমা সোলতানা নামের এক মহিলা তাঁর স্বামী জহির আহমদ নাম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!