Logo
শিরোনাম :
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিভিন্ন প্রকল্পের ভাগবাটোয়ারা নিয়ে শিবগঞ্জে আওয়ামীলীগের ২ গ্রুপের সংঘর্ষ আহত-৫ ঝিকরগাছা শংকরপুরে রাজবাড়ীয়া যুবসংঘের উদ্যোগে ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলার আয়োজন রামুর গর্জনিয়ায় পুলিশের সাথে বাজার ব্যবসায়ীদের মতবিনিময় ” অনলাইন গণমাধ্যমগুলোকে শিল্পে পরিণত করা উচিত ” আবু জাফর নারী নির্যাতন মামলায় বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তার জামিন না মজ্ঞুর করে কারাগারে প্রেরন ইমাম ওলামা পরিষদ রংপুরের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। আরপিএমপি কমিশনারের জন্মদিন উপলক্ষ্যে রংপুরের দোয়া ও এতিমদের নিয়ে নৈশ ভোজের আয়োজন রূপগঞ্জে জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন মাগুরায় সুদের টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে এক পাষণ্ড স্বামী তার স্ত্রীকে ঋণদাতার হাতে তুলে দিয়েছেন বলে অভিযোগ ঝিকরগাছায় ফুল চাষীদের সাথে মতবিনিময় সভায় -জেলা প্রশাসক

প্রশাসনিক অসহযোগিতার অভিযোগ\ বদরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা ময়নুল হকের বিরুদ্ধে ভূমিদস্যু কর্তৃক দায়েরকৃত মামলা আদালতে খারিজ

আফরোজা বেগম রংপুর
রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার গোপিনাথপুর ইউনিয়নের মৌয়াগাছ এলাকায় বসবাসকারী ভূমিহীন মুক্তিযোদ্ধা ময়নুল হক সরকারকে দেয়া ৭১ শতক জমি ২০ বছরেও বুঝে পাননি। বরং এলাকার ভূমিদস্যুদের দেয়া একের পর এক মামলায় নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। আদালতে এসব মামলা খারিজ হলেও প্রশাসনের অসহযোগিতায় মুক্তিযোদ্ধা ময়নুল ওই জমির দখল আদৌ নিতে পারবেন কিনা তা’ নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন।
জানা যায়- ২০০০ সালে মুক্তিযোদ্ধা ময়নুল খাস জমি বরাদ্দ দেয়ার জন্য লিখিত আবেদন করেন। তার আবেদনের প্রেক্ষিতে ওই বছরের ৫ মার্চ তাকে মৌয়াগাছ মৌজায় ৭১ শতক জমি বরাদ্দ দেয়া হয়। অথচ কবুলিয়ত দলিল সম্পন্ন হওয়ার ১০ বছর পর ২০১০ সালে ওই জমি নিজেদের দাবী করে জেলা যুগ্ম জজ আদালতে মামলা করেন সেক্রেটারী পাড়ার নূর বকসের স্ত্রী আফরোজা বেগম। কিন্তু ওই পর্যন্তই। আদালতে মামলার বাদী উপস্থিত না হওয়ায় ২০১৩ সালের ১১ জানুয়ারি মামলাটি খারিজ হয়ে যায়। পরবর্তীতে আদালতের ওই আদেশের বিরুদ্ধে বদরগঞ্জ সহকারী জজ আদালতে আপিল করা হলেও সেটিও খারিজ হয়ে যায়। তারপরও দখল ছাড়েননি তারা। এছাড়া জমি বরাদ্দ নেয়ায় মুক্তিযোদ্ধা ময়নুলকে নানাভাবে হুমকি প্রদান করা হয়। একারণে ২০১৪ সালের ১২ জুলাই স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে জমির সীমানা নির্ধারণসহ মুক্তিযোদ্ধা ময়নুলকে জমির দখল বুঝিয়ে দিতে স্থানীয় ভূমি কর্মকর্তাকে পত্র লেখেন তৎকালিণ সহকারী কমিশনার(ভূমি) এমজে আরিফ বেগ। এতেও সাড়া দেননি দখলদাররা। ফলে নিরূপায় মুক্তিযোদ্ধা দাঙ্গা-হাঙ্গামার আশঙ্কায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে মামলা করেন। আদালত শুনানী শেষে ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা ময়নুলের আবেদন মঞ্জুর করার পাশাপাশি জমির সীমানা নির্ধারণসহ দখল বুঝিয়ে দিতে জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেয়। এছাড়া আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বদরগঞ্জ থানাকে নির্দেশ দেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আরাফাত রহমান। এদিকে আদালতের নির্দেশ পেয়ে জেলা প্রশাসক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে লিখিত নির্দেশ দেন। আর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একইভাবে সহকারী কমিশনার(ভূমি) কে লিখিত আদেশ প্রদান করেন। অপরদিকে বদরগঞ্জ থানার ওসি স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা বলবৎ করতে দায়িত্ব দেন এসআই রেজাউল করিমকে।
তবে মুক্তিযোদ্ধা ময়নুল হক সরকার দাবী করেছেন- সহকারী কমিশনার(ভূমি) কিংবা এসআই রেজাউল করিম কেউই সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করেননি। তাদের অসহযোগিতার কারণে আজো জমির দখল বুঝে পাইনি। একারণে তিনি উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও এসআই রেজাউল করিম।##


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!