Logo
শিরোনাম :
সিংড়ায় আওয়ামীলীগ মনোনিত মেয়র প্রার্থীর ইশতেহার ঘোষনা বেনাপোল মাধ্যমিক বিদ্যালয় এসএসসি- ২০০৩ ব্যাচের বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনের মায়ের মৃত্যুতে কলারোয়া প্রেসক্লাবের শোক ও সমবেদনা বাঁশখালীতে উপকূলীয় পাবলিক লাইব্রেরির পরিচয়পত্র বিতরণ চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক কল্যান সমিতির মানববন্ধন বাঁশখালীর সরল ইউনিয়নে আলালের পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ ডালবুগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সোয়াইব খানের দলীয় মাননায়নপত্র ক্রয় লক্ষ্মীপুর হাজিগঞ্জ ও গৌরীপুর জেলা সড়ক ২টি আঞ্চলিক মহাসড়কে উন্নীত হতে যাচ্ছে! বাকেরগঞ্জের রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে বাবুল খানের বিকল্প নেই ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনসিসির স্বেচ্ছাসেবা কার্যক্রম

প্রতারক চক্রের কাছে জিম্মী ইউনিয়নবাসী রূপগঞ্জে ইউপি সদস্যদের স্বাক্ষর জাল করে বরাদ্দ ও আত্মসাৎ

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ইউপি সদস্যদের সাক্ষ্যর জাল জালিয়াতি করে স্থানীয় একটি জালিয়াত ঠিকাদার চক্র পরপর ৩টি রাস্তার কাজের বরাদ্দের টাকা আতœসাৎ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
শুধু তাই নয়, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও চেয়ারম্যানকে জিম্মী করে কুকর্মের মাধ্যমে ওই চক্রটি ইউনিয়ন পরিষদের বার্ষিক উন্নয়ন বাজেটে বাস্তবায়ন থেকে কমিশন নিচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। না দিলেই সদস্য পদ বাতিলের হুমকিসহ মামলা হামলার ভয় ভীতি দেখাচ্ছে চক্রটি। ভয়ে মুখ খুলছেন না সদস্যরা। সাক্ষ্যর জাল জালিয়াতির ব্যাপারে ইউপি সদস্য মনির হোসেন ও জাকিয়া সুলতানা বাদী হয়ে সাক্ষ্যর জাল জালিয়াতির অভিযোগ এনে রূপগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর সাক্ষ্যর জালিয়াতির অভিযোগসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড মেম্বার মনির হোসেন জানান, বিগত নির্বাচনে অত্র ওয়ার্ডে নির্বাচিত ইউপি সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তা ঘাট মেরামত, নির্মাণকাজে বিধি মোতাবেক ইউপি সদস্যদের উন্নয়নকাজে জড়িত থাকার নিয়ম থাকলেও ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে আলমপুর গ্রামের মৃত ইদ্রিস আলীর ছেলে কথিত ঠিকাদার মোমেন মিয়া ও পিতলগঞ্জ এলাকার ঠিকাদার ওবাইদুল মজিদ জুয়েল মাস্টার জিন্মি করে রাখে। এমনকি ২নং ওয়ার্ডের উন্নয়ন কমিটির নামে উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রাপ্ত বরাদ্দ আতœসাৎ করতে বিগত দিনে বাগবের ও গোয়ালপাড়া এলাকায় পরপর ৩টি রাস্তার কাজ তার স্বাক্ষর নকল করে হাতিয়ে নেয়। পরে নিন্মমানের সামগ্রি ব্যবহার করে ওই রাস্তা করলে ২ মাসেই ভেঙ্গে যায়। এতে গ্রামবাসি ক্ষিপ্ত হলে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রাদি তুলে জানতে পারেন ওই রাস্তার কাজ মনির মেম্বার ও ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার জাকিয়া সুলতানার স্বাক্ষর ছিলো। এসকল সাক্ষ্যর দুজনের একজনও করেনি। তাদের সাক্ষ্যর জাল করা হয়েছে।
এ বিষয়ে জাকিয়া সুলতানা বলেন, জনগণের জন্য কাজ করতে নিজ হাতে উন্নয়ন করতে মেম্বার হয়েছি। কাউকে কমিশন দিয়ে কাজ করার জন্য নয়। কোন কাজেই আমাদের ডাকা হয় না। আমাদের না জানিয়ে এমনকি আমার ওয়ার্ডের কাজ বাস্তবায়ন করে নিচ্ছে আমাদের নামে । বাস্তবে আমরা কিছুই জানিনা। বাগবের এলাকার ওই রাস্তাগুলোতে মনির মেম্বার ও আমার স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে। এ জালিয়াত চক্র পুরো ইউনিয়নের সকল মেম্বারদের জিন্মি করে রেখেছেন। চেয়ারম্যান রহস্যজনক কোন পদক্ষেপ নেননি। এদিকে ১২ জুন শুক্রবার সকালে এসব কাগজে স্বাক্ষর ওই ইউপি সদস্যগণ করে নাই , তারা কাজ বিষয়ে কিছু জানেন না মর্মে তারা নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা , রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, রূপগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত ঠিকাদার ওবাইদুল মজিদ জুয়েল মাস্টার তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিয়মমতো কাজ পেয়েছি। কোন অনিয়ম করিনি। কাউকে জিন্মি করিনি।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন ভুঁইয়া বলেন, অভিযুক্তরা স্বাক্ষর জালিয়াতি করেছেন কিনা আমার জানা নাই। তবে মনির মেম্বার মেম্বার এমন দাবী করেছেন যতি কাজ পেয়েছে ৩ মাস হয়ে গেছে। এতোদিন বিষয়টি জানতাম না। ইউনিয়ন পরিষদের কাজে জালিয়াতির আশ্রয় যাতে ভবিষ্যতে কেউ না নেয় তার দিকে নজর রাখবো। যেহেতু বিষয়টি উর্ধ্বতন মহলে অভিযোগ দেয়া হয়েছে তাদের যা সিদ্ধান্ত হয় তা বাস্তবায়ন করবো।
এ বিষয়ে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম বলেন, এ ধরনের অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে জড়িত প্রমাণিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তাং ১২/০৬/২০ ইং


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!