Logo
শিরোনাম :
অবৈধ কসাইখানা ও পরিবেশ দূষণের সংবাদ প্রচারে সাংবাদিককে হুমকি বগুড়ার উপশহর এলাকায় তরুণীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ভারতে কুরআনের ২৬টি আয়াত বাতিল চেয়েছেল ওয়াসিম রিজভী;তার বিরুদ্ধে পাল্টা রিট দায়ের যশোর ২৫০ শয্যা মেডিকেল হাসপাতালে আইসিইউ চালু ও খাদ্য দাবিতে মানববন্ধন চাঁপাইনবাবগঞ্জে রোজ মেডিকেল সেন্টারকে ভোক্তা অধিকার এর জরিমানা লকডাউন চলাকালীন কর্মহীন প্রতিটি পরিবার পাবে নগদ ৫০০ টাকা আশাশুনিতে ভ্রাম্যমান খাদ্য সামগ্রী বিক্রয়ের উদ্বোধন করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাবনা জেলা আটঘরিয়া থানার হাফিজুর রহমান শ্রেষ্ঠ ওসি আশাশুনিতে কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম এগিয়ে চলছে ঝালকাঠির নলছিটিতে সিটিজেন ফাউন্ডেশনের ইফতার সামগ্রী বিতরণ শুরু

১১ বছরেও হয়নি কুয়াকাটায় বাস টার্মিনাল

মোঃ সাইমুন ইসলাম,পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ
নির্দিষ্ট বাস টার্মিনাল না থাকায় কুয়াকাটা পর্যটন কেন্দ্রের ট্যুরিস্ট পুলিশের অফিস থেকে চৌরাস্তাসহ সী-বীচে যাওয়ার একমাত্র সড়কটি এখন বাসস্ট্যান্ডে পরিণত হয়েছে। প্রায় দেড় কিলোমিটার সড়কের অর্ধেকটা বাসের দখলে থাকায় যানজট লেগেই থাকে।

বিশেষ করে বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত যানজটে জনজীবনে অসহনীয় হয়ে পড়ছে। শুধু তাই নয় চৌরাস্তা থেকে ভিতরে এলজিইডির পুরনো ডাকবাংলো পর্যন্ত সড়কের দুই দিক বাসের দখলে থাকছে। ফলে কুয়াকাটায় আসা পর্যটক-দর্শনার্থীসহ সাধারন পথচারীদের ভোগান্তির শেষ নেই। পৌরসভা গঠনের ১১ বছরেও নির্দিষ্ট বাসস্ট্যান্ড না থাকায় ঢাকা-বরিশাল-খুলনা-যশোর-বেনাপোল-কুষ্টিয়া-পটুয়াখালীসহ বিভিন্ন রুটের শতাধিক বাস মূল সড়কটি দখল করে ব্যবহার করছে।

এছাড়া সারা দেশ থেকে পর্যটকবাহী বাসও সড়কের রাখতে হয়। চার/পাঁচ বছর আগে বেড়িবাঁধের বাইরে বেলাভূমে কিংবা নারিকেল বাগানে রাখত। কিন্তু সাগরের ভাঙ্গনে বাগানের ওই স্পট বিলীন হয়ে গেছে। এ কারণে মানুষের বিড়ম্বনার শেষ নেই। দীর্ঘদিন পরে কুয়াকাটা পৌর প্রশাসন একটি নির্দিষ্ট বাসস্ট্যান্ড নির্মাণ করার উদ্যোগ নিয়েছে।

কিন্তু এখনও কাজ কবে শেষ হবে তার নিশ্চয়তা নেই। ফলে শুধু পর্যটক দর্শনার্থী নয়; স্কুল-মাদ্রাসাগামী শিক্ষার্থীরাও চলাফেরা করতে ঝুঁকিতে থাকছে সর্বদা রাস্তায় বাস থাকার কারণে। মূল সড়কটির পাশের দোকানিরাও পড়েছেন বিপাকে। দোকানের সামনে বাস রাখায় বেচা-কেনায় সমস্যা হচ্ছে। এছাড়া রাস্তা বাসের দখলে থাকায় সরু পথ দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে ছোটখাট দূর্ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত।

স্থানীয়রা জানান, নির্দষ্ট বাস টার্মিনাল এখনও তৈরি না হওয়ায় সৈকতে যাওয়ার একমাত্র সড়কে গড়ে উঠেছে অস্থায়ী বাস টার্মিনাল। সেখানে রাস্তার মাঝে এলোপাথারি বাস পার্কিং করে রাখা হচ্ছে। বাস স্ট্যান্ডকে ঘিরে আশেপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন পরিবহনের কাউন্টার। এসব টিকিট কাউন্টার থেকে যাত্রীদের দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য ডাকাডাকি, অনবরত হর্ণ বাজানোয় শব্দ দূষনে চরম বিরক্তিকর অবস্থায় পড়ছেন আগতরা। জরুরী ভিত্তিতে কুয়াকাটায় একটি বাস টার্মিনাল নির্মাণের দাবী করেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও পর্যটকরা।

পর্যটক একে এম মুনিম হাসান জানান, রাস্তার উপর আমাদের বাস থামালে বাধ্য হয়ে রাস্তায় পরিবার পরিজনসহ নামতে হয়। ওইখান থেকে হোটেলে যেতে হচ্ছে। এভাবে রাস্তার উপর বাস থামানো খুবই বিপজ্জনক। এতে অনেক ঝুঁকি থাকে। নির্দিষ্ট বাসস্ট্যান্ড দরকার বলে তিনি জানিয়েছেন। কুয়াকাটা পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী সাজেদুল আলম জানান, কুয়াকাটা পৌরসভার প্রবেশদ্বারে তুলাতলীতে মহাসড়কের পাশেই বাসস্ট্যান্ড করার জন্য ছয় একর জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া চুড়ান্ত হয়েছে। এখন জায়গা বুঝে নিয়ে বাস টার্মিনাল নির্মাণের কাজ এবছরই শুরু করা হবে। মেয়র আনোয়ার হাওলাদারকে মোবাইল করলে তিনি কল রিসিভ করেননি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!