Logo
শিরোনাম :
রংপুরে অপহরণের ৬ ঘণ্টা পর স্কুলছাত্রী উদ্ধার কলারোয়াতে মুখ চেপে ধরে শিশুকে বলৎকার,রক্তক্ষরণ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি দলীয় শৃংঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে রংপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হিজবুলকে অব্যাহতি আশাশুনিতে এসিল্যান্ড শাহীন সুলতানার ভ্রামমাণ আদালত পরিচালনা দৌলতপুরে আদালতের আদেশ অমান্য করে অন্যের জমিতে বসতি নির্মানের অভিযোগ বরগুনায় বসতঘর এবং নয়টি দোকান আগুনে ছাই বাঁশখালীতে বসতঘর ভাংচুর ও সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত গাজীপুরা লিফটের নিচে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার চাঁপাইনবাবগঞ্জে বৃষ্টি না হওয়ায় আম উৎপাদনের শঙ্কা ঝিকরগাছায় দশ বছরের অবহেলিত রাস্তাটি একদিনে সংস্কার করলেন দুই সমাজ সেবক

“চুনারুঘাটে বহু অপকর্মের হোতা জুনেদের ছুরিকাঘাতে এক ছাত্র গুরুতর আহত” আটক ১

মীর জুবায়ের আলমঃ হবিগঞ্জ জেলা চুনারুঘাট উপজেলা আহম্মদাবাদ ইউনিয়নে আমরোড বাজা দিন দুপুরে তোহা (১৬) নামের দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত করে দিয়েছে চুনারুঘাট উপজেলার গোছাপাড়া গ্রামের আঃ হেকিমের পুত্র জুনেদ (২৫) ।
২৮ মার্চ সকাল প্রায় ৮ ঘটিকায়
উপজেলার আমুরোড বাজারে রাহুল মিয়ার পান দোকানের সামনে ঘটনাটি ঘটেছে।
আহত তোহাকে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তোহা একই গ্রামের মৃতঃ আঃ রউফের পুত্র ও আমুরোড হাইস্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ব্যবসায়ী রাহুল মিয়া জানান, ঘটনার সময় তোহা তার দোকানে সওদা কিনছিল। হঠাৎ করে জুনেদ এসে হাতে থাকা শপিং ব্যাগ থেকে ছুরি বের করে তোহাকে আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতা তাকে আটক করে ফেলে। আহত তোহাকে স্বজনরা হাসপাতালে নিয়ে যান।

পরে, খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানার এসআই ভুপেন্দ্র বর্মন এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে আটককৃত জুনেদকে থানায় নিয়ে যান।
এদিকে অনেকটা সরল প্রকৃতির তোহাকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

আশপাশে নিন্দার ঝড় বইছে ।
এ ঘটনায় লোকজন জুনেদের পরিবারের প্রতিও অসন্তোষ প্রকাশ করছে।

লোকজন বলাবলি করছে ইতিমধ্যে জুনেদ যতগুলো অঘটন ঘটিয়েছে তার প্রত্যেকটি থেকেই তার পরিবার তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করেছে।

২০১৬ সালে জুনেদ মোবাইল ছিনতাইয়ের ঘটনায় জনতার হাতে আটক হলে তার বাবা আঃ হেকিম ও তার ভাই হাছান মিয়াসহ তার পরিবারের লোকজন দা-লাঠি নিয়ে জনতার উপর হামলা করে জুনেদকে ছিনিয়ে নিয়েছিল। যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়া সহ এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছিল।

এর আগে জুনেদ ইভটিজিং করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের সাজা প্রাপ্ত হওয়ার ঘটনায়ও তার পরিবার অনেককে অনেক হুমকি-ধামকি দিয়েছিল।

আমুরোড বাজারের ব্যবসায়ী এমরান মিয়ার বিদ্যুতের লাইন কাটা সংক্রান্ত কারণে এমরানের সাথে জুনেদের ঝগড়া বিবাদকে কেন্দ্র করে জুনেদের বাপ ভাইয়েরা এমরানকে মারপিট করে আহত করেছিল।

চুরি, ছিনতাই, ইভটিজিং, মাদক চোরা কারবারি, জবর দখল সহ জুনেদের বিরুদ্ধে বহু অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে।

একাধিক মামলায় একাধিক বার জেল খাটা এই জুনেদের অপকর্মের শেষ দেখতে চায় এলাকাবাসী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!