Logo
শিরোনাম :
মেয়ে হয়েও করোনা আক্রান্ত রোগীকে বাঁচাতে নৌকায় অক্সিজেন নিয়ে ঝালকাঠির ঐশী ঘুমধুমে পাহাড়ী ঢালে মাছ চাষী করে মাথায় হাত ছৈয়দুল বশরের! শিবগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু ঘুমধুমে টানা বর্ষণে ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ‌্য ও চিকিৎসা পথ্য সামগ্রী দিলেন ওসি আলমগীর হোসেন মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে টেলি সেবা উদ্বোধন শার্শার নিজামপুরে ২০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শার্শায় অসহায় আজগর আলী দম্পতিকে সাহায্য করলেন উদ্ভাবক মিজান স্লুইচ গেট খুলে দেওয়া হয়েছে। সবাই প্রার্থনা করুন,বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হবে ইনশাআল্লাহ ! ভয়াবহ বন‌্যায় প্লাবিত ঘুমধুম এলাকা; ব‌্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা বগুড়ার আদমদীঘিতে প্রবাসীর স্ত্রী সাথে পরকিয়ায় স্থানীয়দের হাতে আটক

নওগাঁর পোরশা বিষ্ণপুর গ্রামে BNP এর জোড়পূর্বক হাসুয়া রামদার ভয় দেখিয়ে জমি দখল

নাহিদ পোরশা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর পোরশা বিষ্ণপুর গ্রামে মোঃ আব্দুল কাইউম এর জমি, বি,এন,পির ক্ষুদে নেতারা জোড় পূর্বক ভয় দেখিয়ে জমি দখল ও বাড়ীর আরসিসি পিলার ভেঙে ফেলেছে, জমি দখল কারী ১। নজরুল ইসলাম (৫৫) পিতা মৃত্যু আলতাব হোসেন,২। আঃ রাকিব(৩৭)পিতা একরামুল হোসেন।মোঃ বাবু(৩০),৪।জাহাঙ্গীর আলম (২৮),৫।সেলিম(২৩),৬।আলমগীর(২৫) সাব পিতা নজরুল ইসলাম।সহ আরও প্রায় অজ্ঞাত নামা ২৫/৩০ জন শত্রুতার জের ধরিয়া, হস্তে ধারালো হাসুয়া,লোহার রড, লোহার সাব্বল, জিআই পাইপ,কোদাল,বড় রামদা,অস্ত্র সস্ত্র সাজিয়া,বেআইনি ভাবে ভাড়াটে দলবল নিয়ে, বিভিন্ন প্রকারের গালিগালাজ করে।

বাড়িতে পুরুষ মানুষ না থাকায়, জোড়পূর্বক আব্দুল কাইউম এর নিজস্ব সম্পত্তি অস্ত্রের সস্ত্রের ভয় দেখিয়া,বাঁশের বাতা ও কঞ্চি দ্বারা ঘিরতে শুরু করে,
তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে আব্দুল কাইউম ছুটে এসে বাঁধা দিলে,এক পর্যায়ে কু পরামর্শ দিয়ে তাদের সাথে তাল মিলায় গ্রামের মোড়ল,মোঃ সোলাইমান আলী (৬০)পিতা আমজাদ হোসেন। তার কথার প্রেক্ষাপট ধরে, মোঃ নজরুল ইসলাম (৫৫) গালিগালাজ করিয়া বলেন, এদের প্রাণে মেরে দিলে কত টাকা খরচ হবে,সব টাকা আমি দিব।

এবং এদের বংশ নির্বংশ করিয়া গুম করিয়া দিলে কত টাকা খরচ হবে,সম্পূর্ণ আমি বহণ করবো। নজরুল ইসলাম এই কথা বললে,উপরোক্ত ২/৩ নং নামকৃত ব্যাক্তি তাদের ডাকাত দলবল নিয়ে,আমার বাড়ির আসবাবপত্র দরজা জানালা, ভাংচুর করে।এবং ৩ নং ব্যাক্তি আমার বড় ভাই মোঃ আব্দুল কুদ্দুস এর মাথায় ধারালো হাসুয়া দ্বারা কোপ মারিলে,আমার বড় ভায়ের মাথা ফাটিয়ে, গুরুতর রক্তাক্ত ও জখম করে,এবং ২নং ব্যাক্তির হাতের লাঠি দ্বারা আমার শরীরে আঘাত করে।

আমার উপর আঘাত হওয়া দেখে, আমার স্ত্রী আগাইয়া গেলে, আমার স্ত্রীকে ৪ নং ব্যাক্তি, চুলের ঝুঁটি ধরে,মুখে চড় থাপ্পড় মারে,এবং মাটিতে ফেলিয়া দিয়া বুক পাঁজর পিঠে কিল ঘুশি লাত্থি মারে।আমি আমার স্ত্রীকে রক্ষা করার চেষ্টা করিলে তারা আমার গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাস রুদ্ধ করার চেষ্টা করে। পরে এলাকা বাসির সু পরামর্শে পোরশা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!