Logo
শিরোনাম :
পোরশা সীমান্তে ভারতের অভ্যন্তরে এক বাংলাদেশী আটক বটিয়াঘাটা দলিল লেখক সমিতি নেতৃবৃন্দ কেন্দ্রীয় সভায় যোগদান বটিয়াঘাটা দলিল লেখক সমিতি নেতৃবৃন্দ কেন্দ্রীয় সভায় যোগদান আলীকদমে গৃহহীনদের ঘর নির্মাণে অনিয়ম-দুর্নীতি, ইউএনও কর্তৃক মিথ্যা প্রতিবেদন দাখিল বাগআঁচড়ায় নৌকায় ভোট চাইলেন জেলা ছাত্রলীগ বঙ্গমাতা পরিষদের নতুন কমিটি ঘোষণা সাজেদা চৌধুরী সভাপতি ও আনিছুর রহমান সম্পাদক পাবনায় মাছ শিকার করে ৪ লাখ টাকা পুরষ্কার জিতলেন দুই ব‍্যবসায়ী সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত ১২নং ওয়ার্ড গড়তে এম.এ মনজুরের বিকল্প নেই বাঁশখালীতে পূজা উদযাপন পরিষদ ও সনাতনী সমাজের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত শ্যামনগরের চাঞ্চল্যকর শিশু ধর্ষণ মামলার আসামী আটক

কাউখালী থানার আয়রন ঝাপূসি গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের ৩ জন আহত হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: কাউখালী থানার আয়রন ঝাপূসি গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের ৩ জন আহত হয়েছে। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে কাউখালী থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে নাজমুন্নাহার নামের একজনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে শেবাচিমে প্রেরণ করে। আহতরা হলেন কাউখালী থানার আয়রন ঝাপূসি গ্রামের নুরুল হক (৫০) তার স্ত্রী নাজমুন্নাহার (৪০) ও ছেলে মোঃ নজরুল ইসলাম (২৫)। আহত সূত্রে জানা যায় নাজমুন্নাহারের সম্পতি জোরপূর্বক পার্শ্ববর্তী মৃত্যু আনসার উদ্দিনের ছেলে হাবিল ওরফে মিরাজ ও সাইদুল রহিম সাঈদ দখল করে তাদের বিল্ডিং এর সিঁড়ি নির্মাণ এর কাজ শুরু করে। এতে নাজমুন্নাহার বাধা দিলে কোন রকমের ভ্রুক্ষেপ নেয়না প্রতিপক্ষ হাবিল ওরফে মিরাজ ও সাইদুল রহিম সাঈদ।পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে অভিযোগ জানালে তিনি ব্যবস্থা করে গত শনিবার বিকেল ৫ টায় স্থানীয় ইউপি মেম্বার মোঃ মাসুম এর উপস্থিতিতে স্থানীয়দের মাধ্যমে সালিশির কার্যক্রম ব্যবস্থা শুরু করে।পরে একপর্যায়ে সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসলে পরের দিন সালিশ ব্যবস্থা দিন ধার্য করে। এদিকে সালিশির লোক ঘটনাস্থল থেকে যাওয়ার পরই প্রতিপক্ষ হাবিল ওরফে মিরাজ, সাইদুল ই রহিম সা, কুরশিয়া বেগম ও মতলেব সহ অজ্ঞাত দুই-তিনজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নুরুল হকের পরিবারের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। এসময় ধারালো দা এবং লাঠি দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে নাজমুন নাহার বেগম তার স্বামী নুরুল হক ও ছেলে নজরুল ইসলামকে। পরে স্থানীয়রা আহতদের ডাকচিৎকার ছুটে আসলেন মূমুর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে কাউখালী থানা কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে নাজমুন নাহার বেগম এর শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখা দিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শেবাচিমে করে। বর্তমানে নুরুল হক প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে আছে এবং তার ছেলে নজরুল ইসলাম কাউখালী থানা কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে ও গুরুতর আহত নাজমুন নাহার শেবাচিমের মহিলা সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনার পর প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা মামলা না দেওয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দিচ্ছে বলে জানান আহতরা। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!