Logo
শিরোনাম :
সাতক্ষীরায় বিজিবি পুলিশের যৌথ অভিযানে ২৭ কেজি রৌপ্যের গহনা সহ আটক ২ লেমুছড়িতে সড়ক দূর্ঘটনায় হতাহতদের মাঝে আর্থিক সহায়তায় দিলেন ইউএনও সালমা ধারাবাহিক উন্নয়ন প্রতিবেদন-২ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড, জনগোষ্টির ভাগ্য বদলে দিচ্ছে পালিত হলো কোয়ান্টাম মাতৃমঙ্গল সেবার বাৎসরিক আয়োজন চাঁপাইনবাবগঞ্জে অটোরিক্সার ধাক্কায় বাইসাইকেল আরোহী নিহত সারাদেশে সাংবাদিকদের তথ্য সংগ্রহ চলছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫ মাস পর কবর থেকে তোলা হলো মোরসালিন এর লাশ অবৈধভাবে চলছে কুন্দিপুর হীরা ব্রীকস্! প্রভাব খাটিয়ে মালিকানাধীন গাছ কাটার অভিযোগ টি-২০ বিশ্বকাপের সম্পূর্ণ সূচী প্রকাশ,২৩ তারিখে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি পাটগ্রাম মডেল প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটির অনুমোদন

মাদক বহন না করায় সিএনজি চালককের উপর নির্যাতন,মাদক ব্যবসায়ীদের খুটির জোর কোথায়

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জ জেলা চুনারুঘাট উপজেলায় মাদকের সাম্রাজ্য সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করছে বিশিষ্ট ব্যাক্তিগন। জানাযায় চুনারুঘাট উপজেলা সাবেক চুনারুঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের সাহেবের ভাতিজা এবং চুনারুঘাট পৌর মেয়রে ছোট ভাই জুয়েল ও তার সহযোগি ওয়াহিদের নেতৃত্বে চলছে মদ,গাঁজা, ইয়াবা,সহ বিভিন্ন ভারতীয় নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য পাচার, এতে কাজে লাগাচ্ছে সিমান্তবর্তী এলাকার উঠতি বয়সের এক শ্রেণীর যুবসমাজকে, তাদের প্ররোচনায় পরে বিপদগামী হয়ে পরছে অনেকে।একটি ভিডিও তে ঘটনার বর্ণনাকারী ব্যক্তি পেশায় একজন সিএনজি চালক বলেন নির্বাচনের প্রচারণা কথা বলে তাকে বাড়িতে নিয়ে যায় শীর্ষ একদল মাদক ব্যবসায়ী। জুয়েল এবং ওয়াহিদ সিএনজি চালকে মোটা অংকের ভাড়া দিবে বলে একটি গাঁজার বস্তা তাকে বহন করে অন্যত্র পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে , সিএনজি চালক তখন অসম্মতি জানায় যে, সে কোন অবৈধ জিনিস তার গাড়িতে উঠাবে না। এরপর প্রভাবশালী মহল তাকে একটি ঘরে আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতন করতে থাকে। তারপরও সিএনজি চালককে রাজি করাতে না পেরে সারারাত তাকে অমানবিক নির্যাতন করতে থাকে। একপর্যায়ে তারা পরিকল্পনা করে তাকে হত্যার করবে। কারণ তাকে জীবিত রাখলে ঘটনা প্রকাশ পেয়ে যেতে পারে। পরবর্তিতে তাকে হাত-পা বেঁধে বাড়ি থেকে বের করে বিভিন্ন জায়গায় আরো কয়েকধপা নির্যাতন করা হয়। যদিও তার বুদ্ধিমত্তা দিয়ে প্রাণে বাঁচতে সক্ষম হয়।

মাদক ব্যবসায়ী নির্যাতনের শিকার হয়ে বর্তমানে চুনারুঘাট উপজেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধিন পরে হবিগঞ্জ জেলা সদরে প্রেরণ করা হয়।
নির্যাতনে শিকার সিএনজি চালক মা-বোন দের আর্তনাদ দেখেছি। অনেকের মুখে বলতে শুনেছি কিছুদিন আগেও অন্য আরো একজন সিএনজি চালককে একইভাবে নির্যাতন করে হাত-পা ভেঙ্গে দেওয়া হয়। চুনারুঘাটে সুন্দরবন কুড়িয়ান সার্ভিস এক প্রতিনিধি কে দিন দুপুরে উপজেলা সামন থেকে কিন্তুু তার বিচার পাওয়া যায়নি। অত্যাচারীদের কালো হাত অনেক শক্তিশালী হওয়ায় ভুক্তভোগী তা নিরবে সহ্য করে নেয়।
একইভাবে এই নির্যাতিত ব্যাক্তির আত্মীয়-স্বজন অনেকে বলেন কোন মামলা-মোকাদ্দমা বা কারো কাছে বিচার না চাওয়ার পরামর্শ দিতেন, কারণ হলো ওদের অনেক ক্ষমতা। ওদের কাছে পুলিশ, সহ সকল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জিম্মি কোনভাবেই কিছু করা সম্ভব না। কিছু করতে গেলে ভবিষ্যতে এরচেয়ে ভয়ংকর হয়ে দাঁড়ায়।তাদের বিরুদ্ধে কোন প্রতিকার নিতে গেলে তারা সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তার দলের লোকদের নিয়ে জারু মিছিল সহ বিভিন্ন প্রতিবাদ করে।এই অসহায় সিএনজি চালকের উপর অমানবিক নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় চুনারুঘাটে সিএনজি শ্রমিক সংগঠন সহ সকল পেশার মানুষ । এবং অনতিবিলম্বে অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির জোর দাবী জানায় নতুবা কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন।বিষয়টি সিলেট রেঞ্জ ডি আইজি এবং হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার কে অবগত করা হয়।পরিবারের পক্ষ থেকে জানাযায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
এব্যাপারে চুনারুঘাট থানা অফিসার ইনর্চাজ বলেন কোন মামলা দেওয়া হয়নি। মামলা দেওয়া হলে আইনগত ব্যবস্হা গ্রহন করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By ThemesWala.Com
error: Content is protected !!